ইভিএম মিলেছিল বিজেপি নেতার গাড়িতে, চার বুথে পুননির্বাচনের দিন ঘোষণা কমিশনের, Election Commission says reelection on 20th April in 4 booths of Assam

[ad_1]

বিজেপি বিধায়কের গাড়িতে ইভিএম

এর আগে ১ এপ্রিল রাতে বুথ থেকে ইভিএম নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওঠে বিজেপি বিধায়কের উপর। অভিযোগ, ওই ইভিএমটি পাওয়া যায় অসমের বিজেপি এমএলএ কৃষ্ণেন্দু পালের গাড়িতে৷ স্থানীয়দের অভিযোগ, ভোট মেটার কিছুক্ষণ পর এমএলএ-র ব্যক্তিগত বোলেরো গাড়িতে পাওয়া যায় একটি ইভিএম৷ বিধায়কের গাড়িতে ইভিএম-এ পাওয়া যাওয়ায় উত্তপ্ত পরিবেশে তৈরি হয়৷ প্রতিবাদে মুখর হয় জনতা৷ চালক ও গাড়িটিকে তারাই পাকড়াও করে৷

দু'গুণ ভোট পড়ে এক বুথে

দু’গুণ ভোট পড়ে এক বুথে

এদিকে রাটাবাড়ি ছাড়াও সেনাই এবং হাফলঙের আরও তিনটি বুথের নির্বাচন বাতিল করা হয়েছিল। অসমের একটি বুথে মোট ভোটারের সংখ্যা ৯০ হলেও, সেখানে ভোট পড়ে ১৮১টি। এই ঘটনায় ৬ জন নির্বাচনী আধিকারিককে বরখাস্ত করা হয়েছিল৷ ১ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় ভোট হয়েছিল ডিমা হাসায়োর এই বুথে৷

বরখাস্ত করা হয় ভোটের দায়িত্বে থাকা আধিকারিকদের

বরখাস্ত করা হয় ভোটের দায়িত্বে থাকা আধিকারিকদের

২০১৬ সালে এখানে জিতেছিলেন বিজেপির বীরভদ্র হ্যাগজার৷ সে বার এই বুথে ভোট পড়েছিল মাত্র ৭৪ শতাংশ৷ তবে এ বার সেই বুথে মোট ভোটারের থেকেও অনেক বেশি ভোট পড়েছে৷ ঘটনায় সেক্টর অফিসার, প্রিসাইডিং অফিসার, ফার্স্ট পোলিং অফিসার, স্বরাজকান্তি দাস, লালজামলো ঠেককে সঙ্গে সঙ্গে বরখাস্ত করা হয়৷

'দল ভাঙিয়ে নিতে পারে বিজেপি'

‘দল ভাঙিয়ে নিতে পারে বিজেপি’

এদিকে জিতলে দল ভাঙিয়ে নিতে পারে বিজেপি৷ আর তাই এখন থেকেই অসমের ২২ জন জোট প্রার্থীর ঠিকানা হল জয়পুরের একটি রিসর্ট৷ ওই প্রার্থীরা ভোটে জিতলে তাঁদের ভাঙিয়ে দল পরিবর্তন করিয়ে নিতে পারে বিজেপি৷ সেকারণেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানা গিয়েছে৷

[ad_2]

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *