নন্দীগ্রামের মানুষ আর চায় না শুভেন্দু অধিকারীকে! চক্রান্তের জয়ে হুঁশিয়ারি সুফিয়ানের

[ad_1]

শুভেন্দু নন্দীগ্রামে জিতেছেন চক্রান্ত করে

সুফিয়ানের কথায়, শুভেন্দু নন্দীগ্রামে জিতেছেন চক্রান্ত করে। এই চক্রান্ত নন্দীগ্রামের মানুষ মেনে নিতে পারেননি। তাই তাঁরা জবাব দেওয়ার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। যেদিন সুযোগ মিলবে, সেদিনই নন্দীগ্রাম বুঝিয়ে দেবে মানুষের সঙ্গে চক্রান্ত করার ফল কত ভয়ানক হতে পারে। মানুষকে বোকা বানিয়েছেন, মানুষই জবাব দেবেন তাঁকে।

সংখ্যালঘু মানুষকে অপমান সংহতির নন্দীগ্রামে, জবাব মিলবে

সংখ্যালঘু মানুষকে অপমান সংহতির নন্দীগ্রামে, জবাব মিলবে

সুফিয়ান বলেন, শুভেন্দু অধিকারী এলাকায় ঢুকলেই গণবিক্ষোভ হবে। নন্দীগ্রাম সংহতির ক্ষেত্র, এখানে হিন্দু-মুসলিমের মধ্যে ভেদাভেদ সৃষ্টি করছেন শুভেন্দু অধিকারী। ধর্মীয় ভেদাভেদ করছেন, সংখ্যালঘু মানুষকে অপমান করছেন, তার জবাব দেবে না নন্দীগ্রাম? নিশ্চয় জবাব মিলবে।

তৃণমূল যদি অন্যায়ভাবে বাধা সৃষ্টি করে, পাল্টা বিজেপির

তৃণমূল যদি অন্যায়ভাবে বাধা সৃষ্টি করে, পাল্টা বিজেপির

সুফিয়ানের কথার জবাবে বিজেপি নেতা প্রলয় পাল বলেন, শুভেন্দু অধিকারী নন্দীগ্রামের নির্বাচিত বিধায়ক। তিনি যেদিন ইচ্ছা এলাকায় আসবেন। কেউ আটকাতে পারবে না। তৃণমূল যদি অন্যায়ভাবে বাধা সৃষ্টি করে, সেক্ষেত্রে বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা রুখে দেওয়ার জন্য তৈরি আছি।

শুভেন্দু অধিকারীর কাছে হেরে গিয়ে চক্রান্তের বাহানা

শুভেন্দু অধিকারীর কাছে হেরে গিয়ে চক্রান্তের বাহানা

প্রলয় পালের কথায়, এলাকার নির্বাচিত বিধায়ককে ঢুকতে বাধা দেওয়া মানে সংবিধানকে অমান্য করা। তৃণমূলের এই অনৈতিক কাজকর্মের জবাব দেবে নন্দীগ্রাম। নন্দীগ্রামে হেরে গিয়ে তৃণমূল বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা চালাচ্ছে। শুভেন্দু অধিকারীর কাছে হেরে গিয়ে চক্রান্তের বাহানা দিচ্ছে তৃণমূল।

[ad_2]

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *