‘পশ্চিমবঙ্গে ফ্যাসিজিমের নগ্ন নাচ দেখতে পাচ্ছি’! ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে দাবি বিজেপির

[ad_1]

পশ্চিমবঙ্গে ফ্যাসিজিমের নগ্ন নাচ দেখতে পাচ্ছি

ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে উদ্বিগ্ন কেন্দ্র। ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাজ্যপালকে ফোন করে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে খোঁজখবর নিয়েছেন। তবে এদিন সকালেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপি নেতা অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায় এবং সম্বিত পাত্র দুজনই রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। বিজেপি নেতা অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, “বাংলার ‘নিজের মেয়ে’ যখন থেকে নির্বাচিত হলেন তখন থেকে পশ্চিমবঙ্গে মা-বোনদের অবস্থা অসহ্য হয়ে গেছে। পশ্চিমবঙ্গে ফ্যাসিজিমের নগ্ন নাচ দেখতে পাচ্ছি গত কয়েকদিন ধরে। এটা যে সুপরিকল্পিত ও সুনিয়োজিত চেষ্টা সেটা পরিষ্কারভাবে বোঝা যাচ্ছে।”

পুলিশের উপর চাপ বাড়াচ্ছেন মমতা

পুলিশের উপর চাপ বাড়াচ্ছেন মমতা

শুধু তাই নয়, রাজ্যে পুলিশ তৃণমূলে চাপে কোনও দায়িত্ব পালন করতে পারছে না বলে মন্তব্য করেন বিজেপি নেতা অর্নিবান গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর দাবি, ‘পুলিশ কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না। ২ মে বিকেল থেকে পুলিশের গাফিলতি চোখে পড়ছে। পুলিশের ওপর চাপ বাড়ানো হচ্ছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেও এটা করেছে, এখনও সেটাই করছে।’ মুখ্যসচিবের কাছে আর্জি জানিয়ে বিজেপির এই নেতা বলেন, ‘রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে বদল হতেই পারে। তাই বলে এই ভাবে অন্য দিকে তাকিয়ে থাকবেন না।’

২.২৮ কোটি বাঙালির পাশে দাঁড়াব

২.২৮ কোটি বাঙালির পাশে দাঁড়াব

প্রেস কনফারেন্স করে আজ বিজেপি নেতা সম্বিত পাত্র বলেন, “ভারতীয় জনতা পার্টি বাংলায় ৮০টি সিট পেয়ে প্রধান বিরোধী দল হয়ে উঠেছে। আমরা তাই প্রতিজ্ঞা করছি, আমরা আমাদের কর্মকর্তা এবং ২.২৮ কোটি বাঙালি যাঁরা আমাদের নীতির প্রতি বিশ্বাস দেখিয়েছেন তাঁদের পাশে আমরা দাঁড়াব। তাঁদের অধিকারের জন্য আওয়াজ তুলব।” শুধু তাই নয়, বিজেপির এই কেন্দ্রীয় নেতার দাবি, ‘মমতা জি, আপনারা জয়ের মর্যাদা পেয়েছেন। আপনি নিজে একজন মহিলা মুখ্যমন্ত্রী। যে মায়েদের আজ ধর্ষণ করা হচ্ছে, যে মেয়েদের বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে, তারা কি বাংলার মেয়ে নয়? তাদের প্রতি কি এই জাতীয় আচরণ করা উচিত?’ একই সঙ্গে বিজেপির এই কেন্দ্রীয় নেতার দাবি, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডাকেও পাথর ছোঁড়া হয়েছিল। রাজ্যে বিজেপির কর্মীরা বছরের পর বছর এ ভাবে আক্রমণের শিকার হয়েও ধৈর্য্য ধরে কাজ করছেন, হাতে অস্ত্র তুলে নেননি বলে উল্লেখ করেন সম্বিত পাত্র। সম্বিত পাত্রের দাবি, ‘বিজেপি আর তৃণমূলের একটাই তফাৎ। তৃণমূলে পিসি-ভাইপোর পরিবারই একটা দল। আর বিজেপিতে গোটা দলটাই একটা পরিবার।’

বাংলায় আসছেন জে পি নাড্ডা

বাংলায় আসছেন জে পি নাড্ডা

ভোট পরবর্তী বাংলায় দুদিনের রাজ্য সফরে আসছেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, আজ মঙ্গলবারই আসছেন তিনি। ‘আক্রান্ত’ বিজেপি কর্মীদের সঙ্গেও দেখা করবেন তিনি। আক্রান্ত কর্মীদের বাড়িও যাওয়ার কথা রয়েছ তাঁর। মনোবল বাড়ানোর চেষ্টা করবেন। অন্যদিকে, ভোট পরবর্তী হিংসায় বঙ্গজুড়ে আক্রান্ত হচ্ছেন কর্মীরা, এমনই অভিযোগ তুলে আগামী বুধবার দেশজুড়ে ধর্নার ডাক দিয়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে সংবাদসংস্থা এএনাইকে জানানো হয়েছে, বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে সবরকম কোভিড প্রোটোকল মেনেই ধর্নায় বসবে তারা। একদিকে যখন রাজভবনে তৃতীয়বারের জন্যে শপথ নেবেন মমতা তখন বিজেপি নেতারা ধর্ণায় বসবেন।

[ad_2]

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *