বিজেপিতে মোহভঙ্গ! তৃণমূলে ঘরওয়াপসির হিড়িক পড়তে চলছে একুশের ভোট শেষে

[ad_1]

তৃণমূল ছেড়ে যাঁরা এসেছিলেন বিজেপিতে

একুশের নির্বাচনের হারের পর বিজেপিতে যে ভাঙন ধরবে, তা আন্দাজ করেছিল নেতৃত্ব। তাই ঘটা করে বিজেপিতে শপথ গ্রহণ করা হয়েছিল। কিন্তু বিজেপির সেই শপথে বহু নেতা-নেত্রী অনুপস্থিত ছিলেন। তা নিয়ে চর্চাও কম হয়নি। বিশেষ করে তৃণমূল ছেড়ে যাঁরা এসেছিলেন বিজেপিতে, তাঁরা ঘরওয়াপসির জন্য মুখিয়ে আছেন বলে গুঞ্জন শুরু হয়ে যায় ওই অনুপস্থিতিতে।

বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিতে যোগাযোগ শুরু

বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিতে যোগাযোগ শুরু

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর এখনও একমাস কাটেনি। এর মধ্যেই বিজেপিতে বেসুর হতে শুরু করে দিয়েছেন অনেকে। অনেকেই দল ছেড়েছেন। অনেকে দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিতে যোগাযোগ শুরু করে দিয়েছেন। এরই মধ্যে সোনালি গুহ খোলা চিঠি লিখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

তৃণমূলে যোগ দেওয়ার হিড়িক পড়ে যাবে এবার!

তৃণমূলে যোগ দেওয়ার হিড়িক পড়ে যাবে এবার!

রাজনৈতিক মহল মনে করছে, বহু বিজেপি নেতা এবার তৃণমূলমুখী হবেন। ভোটের আগে যেমন বিজেপিতে যাওয়ার হিড়িক পড়েছিল, এবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার হিড়িক পড়ে যাবে। এই স্রোত রুখতে পারবে না বিজেপি। এখন দেখার তৃণমূল এই দলত্যাগীদের নিয়ে কি সিদ্ধান্ত নেয়। কাদের দলে এন্ট্রি দেয়।

তৃণমূল ছেড়ে যাঁরা বিজেপিতে গিয়েছেন, তাঁরাই ফিরবেন!

তৃণমূল ছেড়ে যাঁরা বিজেপিতে গিয়েছেন, তাঁরাই ফিরবেন!

বিশেষ করে নজর থাকছে মুকুল অনুগামী নেতাদের দিকে। মুকুল অনুগামী নেতারা বিজেপিতে ব্যাকফুটে চলে গিয়েছেন। তৃণমূল ছেড়ে যাঁরা বিজেপিতে গিয়েছেন, তাঁদের বেশিরভাগই এখন বিপাকে পড়েছেন। না পারছেন বিজেপিতে সক্রিয় হতে, না পারছেন তৃণমূলে ফিরে যেতে। তাই রাজনৈতিক মহলের নজর এখন তাঁদের দিকেই।

২০ দিনের মধ্যেই বিজেপি-ত্যাগে উল্টো স্রোত

২০ দিনের মধ্যেই বিজেপি-ত্যাগে উল্টো স্রোত

ভোটের আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, যাঁরা দল ছেড়ে চলে গিয়েছেন, তাঁদের আর ফেরাবে না তৃণমূল। যদিও ভোটে জেতার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নমনীয় হয়েছিলেন। বলেছিলেন, কেউ ফিরতে চাইলে দুয়ার খোলা। ২০ দিনের মধ্যেই বিজেপি ছেড়েছেন অনেকে। তাঁরা তৃণমূল ফিরবেন কি না বা তৃণমূল তাঁদের নেবে কি না এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি।

উল্টো স্রোতেএবার ধেয়ে আসছে প্রবল গতিতে

উল্টো স্রোতেএবার ধেয়ে আসছে প্রবল গতিতে

ভোটের পরই দলত্যাগ নিয়ে সবথেকে বেশি চর্চা হয়ছিল মুকুল রায়ের নাম নিয়ে। তারপর উঠেছিল রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম। এছাড়া মুকুল ঘনিষ্ঠ অনেকের নাম নিয়েও চর্চা চলছে। এরই মধ্যে আবার বিজেপি ছেড়েছেন দীপেন্দু বিশ্বাস, ভূষণ সিংয়ের মতো নেতারা। সোনিলী গুহ তৃণমূলে ফিরতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দিয়েছেন। এছাড়া অনেক নেতা বিজেপি ছেড়েছেন এবং ছাড়তে চলেছেন। তাই উল্টো স্রোত এবার ধেয়ে আসছে প্রবল গতিতে।

[ad_2]

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *