বিধানসভা ভোটের আবহে ৬৯৫ কোটির নির্বাচনী বন্ড বিক্রি গোটা দেশে, তালিকায় শীর্ষে কলকাতা

[ad_1]

আরটিআইয়ে সামনে এল আসল তথ্য

সম্প্রতি আধিকার আইন মারফত এই বিষয়ে বিশদ তথ্য জানতে চাওয়া হয় স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইণ্ডিয়ার কাছে। তারপরেই সামনে আসে আসল তথ্য। তাতেই দেখা যাচ্ছে ১ এপ্রিল থেকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত সময়ে যখন তামিলনাড়ু, কেরল, পশ্চিমবঙ্গ, অসম ও পদুচেরিতে পূরো মাত্রায় নির্বাচনী হওয়া বইছে সেই সময়ই এই বিশাল মাত্রার নির্বাচনী বন্ড বিক্রি হয়।

 ১৭৬.১ কোটি টাকার নির্বাচনী বন্ড বিক্রি কলকাতায়

১৭৬.১ কোটি টাকার নির্বাচনী বন্ড বিক্রি কলকাতায়

এদিকে জানুয়ারিতে বন্ড বিক্রির পরিমাণ ছিল ৪২ কোটির আশেপাশে। এদিকে পরিসংখ্যান বলছে সমথেকে বেশি পরিমাণ ইলেক্টোরাল বন্ড বিক্রি হয় কলকাতা শাখায়। তবে কোন দলের তরফে সব থেকে বেশি নির্বাচনী বন্ড কেনা হয়েছে সেই তালিকা প্রকাশ করা হয়নি এসবিআই-র তরফে। সূত্রের খবর, ভোটের আবহে প্রায় ১৭৬.১ কোটি টাকার নির্বাচনী বন্ড বিক্রি হয় শুধুমাত্র কলকাতায়।

 কলকাতার পরেই তালিকায় দিল্লি

কলকাতার পরেই তালিকায় দিল্লি

এদিকে কলকাতার পরেই তালিকায় রয়েছে দিল্লি। সেখানে মোট ১৬৭ কোটি টাকার কাছাকাছি নির্বাচনী বন্ড বিক্রি হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। চেন্নাইয়ে বিক্রির পরিমাণ ১৪১.৫ কোটি। সেখানে হায়দরাবাদ ও মুম্বইয়ের মতো দুটি শহরেই ৯১ কোটি টাকার নির্বাচনী বন্ড বিক্রি হয়। সেখানে শুধুমাত্র গান্ধীনগর শাখায় বিক্রি হয় ১৫ কোটি টাকার ইলেক্টোরাল বন্ড।

রাজ্যপালকে ‘বয়কট' করার পথে রাজ্য! জগদীপ ধনখড়ের অপসারণ চেয়ে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিচ্ছেন মমতারাজ্যপালকে ‘বয়কট’ করার পথে রাজ্য! জগদীপ ধনখড়ের অপসারণ চেয়ে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিচ্ছেন মমতা

 কোথায় কত টাকা তোলা হল ?

কোথায় কত টাকা তোলা হল ?

অন্যদিকে জয়পুরে ৫ কোটি টাকার নির্বাচনী বন্ড বিক্রি হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। গুয়াহাটিতে ৪.১৫ কোটি ও পানাজিতে ৩ কোটি টাকার নির্বাচনী বন্ড বিক্রি হয়েছে বলে খবর। পরিসংখ্যান এও বলছে এর মধ্যে সবথেকে বেশি টাকা তোলা হয়েছে দিল্লিতে। যা মোট বন্ড বিক্রির মোট অর্থরাশির প্রায় অর্ধেক। বাকি টাকার মধ্যে ১১৬ কোটি টাকা তোলা হয় ভুবনেশ্বরে। কলকাতায় তোলা হয় ৫৫ কোটি টাকা। চেন্নাইয়ে ১০৬ কোটি টাকা।

[ad_2]

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *