মুকুল বিজেপিকে এড়িয়ে তৃণমূল নেতৃত্বের কাছে, অস্বস্তির প্রশ্নে কী জবাব দিলেন দিলীপ

[ad_1]

মুকুলের পদক্ষেপে অস্বস্তির মুখে বিজেপি

এবারই প্রথম ভোট ময়দানে নেমে স্বস্তির জয় পেয়েছেন মুকুল রায়। তিনি বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে টানা তৃতীয়বার সরকার গঠনের পর বিধানসভায় শপথ নিলেন নবনির্বাচিত বিধায়করা। এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে মুকুলের পদক্ষেপে অস্বস্তির মুখে পড়তে হল বিজেপিকে।

মুকুল রায় নেতৃত্বকে এড়িয়ে গিয়েছেন

মুকুল রায় নেতৃত্বকে এড়িয়ে গিয়েছেন

মুকুল বিধানসভা নির্বাচনে জিতেও বিজেপিতে ভালো নেই। দল ক্ষমতায় আসতে ব্যর্থ হয়েছে।ছেলেও হেরে গিয়েছে। এই অবস্থায় বিধানসভায় শপথ নিতে গিয়ে মুকুল রায় নেতৃত্বকে এড়িয়ে গিয়েছেন। তিনি তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে জল্পনা বাড়িয়েছেন। তারপর মৌনী হয়ে বলেছেন, যা বলার পরে ডেকে বলব।

breaking 1 1616079534একক ভ্যাকসিন নীতি-বিনামূল্যে করোনা টিকার দাবি! মোদী সরকারের উপর চাপ বাড়িয়ে সুপ্রিম কোর্টে মমতা

দল অবশ্য মুকুল রায়ের পাশেই দাঁড়িয়েছে

দল অবশ্য মুকুল রায়ের পাশেই দাঁড়িয়েছে

এখানেই শেষ নয়, মুকুল রায় এদিন পরিষদীয় দলের বৈঠকও এড়িয়ে গিয়েছেন। তাঁর গরহাজিরা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠেছে বিজেপির অন্দরে। কানাঘুষো চলছে, তৃণমূলে নরম হচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রাক্তন সেনাপতি মুকুল রায়। এই অবস্থায় দল অবশ্য মুকুল রায়ের পাশেই দাঁড়িয়েছে। তাঁর হয়েই সাফাই গেয়েছেন।

অভিমানের মেঘ কেটে যাবে অচিরেই, বিশ্বাস দিলীপের

অভিমানের মেঘ কেটে যাবে অচিরেই, বিশ্বাস দিলীপের

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ মুকুল রায় প্রসঙ্গে বলেন, দল হারার দুঃখ থেকেই মুকুল রায় অভিমান করেছেন। সেই অভিমানের মেঘ কেটে যাবে অচিরেই, এমনটাই বিশ্বাস বিজেপির। মুকুল রায় মৌনতা আর যা বলার পরে ডেকে বলব মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষ এড়িয়ে যাওয়া জবাব দিয়েছেন।

মুকুলের আচরণে স্বাভাবিকতাই দেখছেন দিলীপ

মুকুলের আচরণে স্বাভাবিকতাই দেখছেন দিলীপ

দিলীপ ঘোষ বলেন, মুকুলদার সবাই পরিচিত বিধানসভায়। প্রথমবার তিনি বিধানসভায় এলেন বিধায়ক হিসেবে। উনি সবার সঙ্গে কথা বলবেন, এটাই তো স্বাভাবিক। সেই কারণেই তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সির সঙ্গে কুশল বিনিময় হয় মুকুলদার। তা ভিন্ন কিছু নয়। অযথা জল্পনা বাড়ানো হচ্ছে।

[ad_2]

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *