Borosil will give 2 years of salary to family of employees who die due to Corona Virus

Borosil will pay 2 years of salary to family of employees who die due to Corona

We have lost four representatives to the dreadfull pandemic’ read a post common by Borosil Ltd. on Saturday morning. The message came when India is wrestling with a destructive COVID-19 wave.

The dishes organization, which was framed on 1962, has chosen to give COVID-19 alleviation for its representatives and their family on the off chance that the family endures a misfortune because of the pandemic.

In an articulation shared by Borosil’s overseeing chief Shreevar Kheruka, which likewise names the four colleagues who lost their life to Covid, the organization reported that “the group of any representative and their auxiliaries will be given two years of compensation in the occasion on an unfortuante death inferable from COVID-19.”

Read Also: Tesla 2021: What we expect to see from Elon Musk and company

Notwithstanding long term’s compensation, “the instruction of the offspring of the representative will be paid till graduation in India.

Borosil will give 2 years of salary to family of employees

২০২০-তে দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা হতেই চরম সংকটে পড়েছিলেন লাখো মানুষ। কারও ব্যবসা লাটে উঠেছিল তো হাজারো মানুষ চাকরি খুইয়েছিলেন। বছর ঘুরে ফের একইরকম পরিস্থিতির সম্মুখীন দেশের একটা বড় অংশ। আর ঠিক এই সময়ই নিজেদের কর্মীদের জন্য ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হল বোরোসিল কোম্পানি। জানিয়ে দিল, কোভিড আক্রান্ত হলে কোনও কর্মচারী প্রাণ হারালে আগামী দু’বছর মৃতের পরিবারের হাতে বেতন তুলে দেওয়া হবে।

দেশে লাগামছাড়া করোনা সংক্রমণ (Corona Virus)। ভোলবদলে আরও শক্তিশালী হয়ে উঠেছে মারণ ভাইরাস। ফলে প্রতিদিনই লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এমন পরিস্থিতিতে বাড়ির উপার্জনকারীর মৃত্যুতে রীতিমতো দিশেহারা অবস্থা হচ্ছে বহু পরিবারের। অতিমারীর মধ্যে নতুন কাজ খুঁজে পাওয়াও কঠিন হয়ে পড়ছে। এমন সংকটের দিনে নিজেদের লাভের কথা চিন্তা না করে মহানুভবতার পরিচয় দিল বোরোসিল লিমিটেড ও বোরোসিল রিনিউএবেলস লিমিটেড। রবিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বিজ্ঞপ্তিতে বোরোসিল লিমিটেডের (Borosil Ltd) ম্যানেজিং ডিরেক্টর শ্রীবর খেরুকা জানান, কোনও কর্মীর মৃত্যু হলে যাতে পরিবার অসহায় অনুভব না করে, তার জন্য কোম্পানি তাঁদের পাশে দাঁড়াবে।

তাঁর কথায়, “অতিমারীতে ইতিমধ্যেই আমরা আমাদের চারজন কর্মীকে হারিয়েছি। সন্তোষ চালকে, বিজয় শির্সথ, তুষার পাঞ্চাল ও শিবশংকর বিস্তকে হারিয়ে আমরা শোকাহত। সংস্থার বাকি কর্মীদের জানাতে চাই, আমাদের কোনও কর্মীর কোভিডে মৃত্যু হলে সেই পরিবারকে দু’বছরের বেতন পৌঁছে দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে তাঁদের সন্তানদের ভারতের কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েশন পর্যন্ত লেখাপড়ার দায়িত্বও নেবে কোম্পানি। কোনও কিছুই একটা মৃত্যুর ক্ষতিপূরণ করতে পারে না। তবে সংস্থার আশা, দুর্দিনে এভাবে অন্তত পরিবারকে সাহায্য করলে তাঁরা ঘুরে দাঁড়ানোর সময়টুকু পাবেন।”

সংস্থার এমন উদ্যোগ স্বাভাবিকভাবেই প্রশংসা কুড়িয়েছে নেটিজেনদের। লোকসানের কথা ভেবে যেখানে বহু কোম্পানি মহামারীর মধ্যে কর্মী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সেখানে বোরোসিলের মালিকের মানবিক রূপটিই দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে বলে মনে করছেন তাঁরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *